ডিগ্রী ২য় বর্ষ ২০২১ ইসলামিক স্টাডিজ ৪র্থ পত্র স্পেশাল শর্ট সাজেশন রেডি আছে নিতে চাইলে ম্যাসেজ করুন। হেল্পলাইন নম্বর: ০১৯৩৩০৮৯৬৪৯
Welcome To TopSuggestion

যুক্তরাষ্ট্রীয় সরকার কাকে বলে

 যুক্তরাষ্ট্রীয় সরকার কাকে বলে







ভূমিকা: কেন্দ্রও অঙ্গরাজ্য বা অংশের মধ্যে ক্ষমতা বন্টনের ভিত্তিতে আধুনিক সরকারকে এককেন্দ্রিক ও যুক্তরাষ্ট্রীয় এ দু’ভাগে বিভক্ত করা হয়েছে। রাষ্ট্রের শাসন ক্ষমতা যখন একটি মাত্র কেন্দ্রীয় সরকারের হাতে ন্যস্তথাকে তখন তাকে এককেন্দ্রিক সরকার বলে। এককেন্দ্রিক শাসন ব্যবস্থায় শাসনতন্ত্রের বিধান অনুযায়ী সকল ক্ষমতা কেন্দ্রীয় সরকারের হাতে থাকে। এই ব্যবস্থায় প্রাদেশিক বা আঞ্চলিক সরকারের অস্তিত্বথাকতে পারে, তবে তা কেন্দ্রীয় সরকারের নিকট থেকে ক্ষমতাপ্রাপ্ত হয়। শাসনতন্ত্রের বলে তারা ক্ষমতাপ্রাপ্ত হয় না। তারা কোন মৌলিক ক্ষমতার অধিকারী নয়। এককেন্দ্রিক শাসন ব্যবস্থায় প্রাদেশিক বা আঞ্চলিক সরকার কেন্দ্রীয় সরকারের এজেন্ট হিসাবে কাজ করে। ফ্রান্স, জাপান, যুক্তরাজ্য, বাংলাদেশ প্রভৃতি দেশ এককেন্দ্রিক সরকারের উদাহরণ। যুক্তরাষ্ট্রগঠিত হয় একাধিক রাজ্য বা রাষ্ট্রের সমন্বয়ে। রাজনৈতিক জীবনে পূর্ণতা প্রাপ্তির জন্য তারা স্থায়ীভাবে সংঘবদ্ধ হয়। কতকগুলো ছোট ছোট অঞ্চল একত্রিত হয়ে শাসনতন্ত্রেউল্লেখিত ক্ষমতা বন্টনের ভিত্তিতে যখন একটি বৃহৎ রাষ্ট গঠন করে তখন একটি যুক্তরাষ্ট্রীয় সরকার গঠিত হয়। যুক্তরাষ্ট্রীয় ব্যবস্থায় শাসনতন্ত্রনিরপেক্ষ দলিল হিসেবে কেন্দ্রও প্রদেশের মধ্যে ক্ষমতা বন্টন করে। ক্ষমতা বন্টন কেন্দ্রীয় সরকারের উপর নির্ভর করে না। যুক্তরাষ্ট্রীয় সরকারে খুব সংগত কারণেই সংবিধানের প্রাধান্য রক্ষা করা হয়। সুপ্রীম কোর্ট সংবিধানের প্রাধান্য রক্ষা করে। ভারত, কানাডা ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র যুক্তরাষ্ট্রীয় সরকারের দৃষ্টান্ত।


যুক্তরাষ্ট্রীয় সরকার: যুক্তরাষ্ট্রীয় সরকার হল এমন এক ধরনের সরকার ব্যবস্থা যেখানে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা সংবিধান অনুযায়ী কেন্দ্রীয় ও প্রাদেশিক সরকারের মধ্যে বন্টন করা হয়। ডাইসি বলেছেন, ‘‘যুক্তরাষ্ট্রীয় ব্যবস্থা এমন এক রাজনৈতিক সংগঠন যেখানে জাতীয় সরকারের সাথে প্রাদেশিক সরকারের অধিকারের সামঞ্জস্যপূর্ণ সমন্বয় সাধন সম্ভব হয়।’’ এ ব্যবস্থায় ক্ষমতা বন্টন এমন প্রক্রিয়ায় হয়, যার ফলে কেন্দ্রীয় সরকার ও আঞ্চলিক সরকার - প্রত্যেকেই নিজ নিজ এলাকায় স্বতন্ত্রও স্বাধীনভাবে কাজ করতে পারে। এ অভিমত ব্যক্ত করেছেন, কে, সি, হুইয়ার (By the federal principle, I mean the method of dividing power so that the general and regional governments are each within a sphere co-ordinate and independent.) 

যুক্তরাষ্ট্রের ইংরেজী প্রতিশব্দ Federation এসেছে ল্যাটিন শব্দ ফোয়েডাস (Foedus) থেকে। এর অর্থ ঐক্য বা মিলন। সুতরাং শব্দগত অর্থে যুক্তরাষ্ট্রবলতে বোঝায় ঐক্য বা মিলনের ভিত্তিতে গঠিত রাষ্ট্রকে। এ ক্ষেত্রে কয়েকটি রাষ্ট্রবা প্রদেশের সমন্বয়ে গঠিত হয় একটি রাষ্ট্র- যেখানে সাংবিধানিক ভাবে কেন্দ্র ও অঞ্চলের মধ্যে ক্ষমতার বন্টন হয়ে থাকে। কেউ কারও অধীন নয় এবং প্রত্যেকের ক্ষমতার উৎস থাকে সংবিধান। আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, অস্ট্রেলিয়া ও ভারত এ ধরনের সরকার ব্যবস্থার উদাহরণ। কতকগুলো নির্দিষ্ট ও সাধারণ স্বার্থের ভিত্তিতে রাষ্ট্রগুলো একত্রিত হয়ে একটি কেন্দ্রবা ফেডারেশন গঠন করে থাকে। সাধারণত প্রতিরক্ষা, পররাষ্ট্রবিষয়ক ক্ষমতা ব্যতীত অন্যান্য ক্ষমতা যেমন শিক্ষা, স্বাস্থ্য, শিল্প, কৃষি, সামাজিক উন্নয়নমূলক ক্ষমতা ইত্যাদি অঙ্গরাজ্যের হাতে ন্যস্তথাকে। 

উপসংহার: যুক্তরাষ্ট্রীয় সরকার ব্যবস্থায় রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা সংবিধান অনুযায়ী কেন্দ্রীয় ও প্রাদেশিক সরকারের মধ্যে বন্টন করা হয়। এ সরকার ব্যবস্থার ক্ষমতার উৎস হল সংবিধান। এর ফলে কেন্দ্রীয় ও আঞ্চলিক সরকার নিজ নিজ এলাকায় স্বাধীন ও স্বতন্ত্রভাবে কাজ করতে পারে। জনগণের ক্ষমতা প্রয়োগের ক্ষেত্রে যুক্তরাষ্ট্রীয় ব্যবস্থা একটি উৎকৃষ্ট আদর্শ। যুক্তরাষ্ট্রীয় শাসন ব্যবস্থায় যেমন কতকগুলো ভাল দিক আছে, সে সঙ্গে কিছু খারাপ দিকও রয়েছে। 
Share This

0 Response to "যুক্তরাষ্ট্রীয় সরকার কাকে বলে"

Post a Comment

Popular posts