Welcome To TopSuggestion

ব্যষ্টিক ও সামষ্টিক অর্থনীতি কাকে বলে

ব্যষ্টিক ও সামষ্টিক অর্থনীতি কাকে বলে

 

ভূমিকা: আধুনিক কালে অর্থনীতিকে পদ্ধতিগত দিক হতে দুই ভাগে ভাগ করা হয়। যথা: (ক) ব্যষ্টিক অর্থনীতি ও (খ) সামষ্টিক অর্থনীতি। ১৯৩৩ সালে অসলো বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক রগনার ফ্রিশ কতৃক এ শব্দটি সর্বপ্রথম ব্যবহৃত হয়।

ব্যষ্টিক অর্থনীতি ও সামষ্টিক অর্থনীতির মধ্যে নিম্নলিখিত পার্থক্যগুলো বিদ্যমান:
শব্দগত পার্থক্য: ব্যষ্টিক বা Micro  শব্দের অর্থ হলো ক্ষুদ্র বা ছোট। অপরদিকে সামষ্টিক বা Macro শব্দের অর্থ হলো‌ বৃহৎ বা বিশাল।

ব্যষ্টিক অর্থনীতি: অর্থনীতির যে শাখায় অর্থব্যবস্থার ক্ষুদ্র, ক্ষুদ্র একক যেমন– একজন ভােক্তা, একটি পণ্যের দাম, একটি উৎপাদন প্রতিষ্ঠান, একটি শিল্প ইত্যাদির আচরণ বিশ্লেষণ করা হয় তাকে ব্যষ্টিক অর্থনীতি বলে। ব্যষ্টিক অর্থনীতির আওতা ও পরিধি ক্ষুদ্র।

 

সামষ্টিক অর্থনীতি বলে:  অর্থনীতির যে শাখায় অর্থব্যবস্থার সামগ্রিক দিক যেমন- মােট ভােগ ব্যয়, মােট বিনিয়ােগ ব্যয়, জাতীয় আয় ইত্যাদি বিষয় নিয়ে আলােচনা করা হয় তাকে সামষ্টিক অর্থনীতি বলে। সামষ্টিক অর্থনীতির আওতা ও পরিধি ব্যাপক ও বিস্তৃত।

উপসংহার : উপরােক্ত ক্ষেত্রগুলােতে ব্যষ্টিক এবং সামষ্টিক অর্থনীতির মধ্যে পার্থক্য পরিলক্ষিত হলেও এরা একে অপরের পরিপূরক । অর্থনৈতিক ব্যবস্থা বিশ্লেষণে একটি অপরটি ব্যতিরেকে অসম্পূর্ণ । সুতরাং অর্থনীতির ব্যষ্টিক ও সামষ্টিক কোনাে অংশকেই অস্বীকার করার উপায় নেই ।

Share This

0 Response to "ব্যষ্টিক ও সামষ্টিক অর্থনীতি কাকে বলে"

Post a Comment

Popular posts