ডিগ্রী ২য় বর্ষ ২০২১ দর্শন ৪র্থ পত্র স্পেশাল শর্ট সাজেশন রেডি আছে নিতে চাইলে ম্যাসেজ করুন।
Welcome To TopSuggestion

বিশ্বগ্রামের ধারণা ( Concept of Global Village )

এখানে যে সকল প্রশ্নের উত্তর পাবেন

বিশ্বগ্রাম কি ?

গ্লোবাল ভিলেজের সুবিধাসমূহ ?

গ্লোবাল ভিলেজের অসুবিধা ?

বিশ্বগ্রাম প্রতিষ্ঠার উপাদানসমূহপ ?

বিশ্বগ্রামের ধারণা সংশ্লিষ্ট প্রধান উপাদানসমূহ ?


বিশ্বগ্রামের ধারণা ( Concept of Global Village )

Village বা গ্রাম হলাে একটি ছােট গােষ্ঠী অথবা কতকগুলাে বাড়ির সমষ্টি । নির্দিষ্ট এলাকায় সীমিত আয়তনে একটি গ্রামের অবস্থান বিধায় গ্রামে বসবাসকারীরা সবাই সবাইকে চিনে । গ্রামে কোন তথ্য প্রকাশিত হলে মুহূর্তেই তা মুখে মুখে জানাজানি হয়ে যায় । গ্রামে যে কোনাে মুহূর্তে একজন আরেকজনের কাজে সহযােগিতা করে থাকে । গ্লোবাল শব্দের অর্থ হলাে বিশ্ব । গ্লোবাল ভিলেজ অর্থ বিশ্বগ্রাম । গ্লোবাল ভিলেজ হলাে প্রযুক্তিনির্ভর একটি বিশ্ব যাতে বিশ্বের সবদেশ সবজাতি একটি গ্রামের মতাে সুবিধা পায় । বিশ্বের প্রতিটি প্রান্তেই গ্রামের অস্তিত্ব লক্ষ্য করা হয় । কতকগুলাে গ্রামের সমন্বয়ে শহর , কতকগুলাে শহরের সমন্বয়ে একটি জেলা বা অঞ্চল এবং কতকগুলাে জেলা ও অঞ্চলের সমন্বয়ে গড়ে ওঠে একটি দেশ । আবার অসংখ্য দেশের সম্মিলিত ভৌগােলিক অবস্থানকে বিশ্ব বলে বিবেচনা করা হয় । বর্তমানে প্রযুক্তির কল্যাণে বিশ্বের পরিধি আজ ছােট হয়ে এসেছে । বৃহৎ প্রেক্ষাপটে সে হিসেবে বিশ্বটাই হলাে একটি গ্রাম । অন্যকথায় পৃথিবী একটি একক পরিবার । বিশ্বগ্রাম বা গ্লোবাল ভিলেজ বলতে সাধারণত এমন একটি ধারণাকে বুঝানাে হয় যেখানে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের লােকজন পরস্পরের সাথে সহজ যাতায়াত ও ভ্রমণ , গণমাধ্যম ও ইলেকট্রনিক যােগাযােগের মাধ্যমে যুক্ত থাকে এবং একক ক্যুনিটিতে পরিণত হয় । বিভিন্ন ধরনের মিডিয়া বিশেষ করে ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েব এর ব্যাপক ব্যবহার ও প্রভাবের সহজেই যােগাযােগ করতে পারছে । তথ্যের এ আদান প্রদান বিশ্বকে এতটাই কাছে নিয়ে এসেছে যে এটি এখন একটি গ্রাম কারণে আজ বিশ্বের কোনাে এক দেশের এক প্রান্তের লােক প্রান্তের অন্য কোনাে দেশের লােকের সাথে খুব কম্পিউটার ও ইন্টারনেটসহ কিছু ইলেকট্রনিক মাধ্যম এক্ষেত্রে দূরত্বের ব্যবধানটি ঘুচিয়ে দেয় । বসবাসকারী কোনাে ব্যক্তির সাথে তাৎক্ষণিকভাবে অনলাইনে যােগাযােগ করতে পারেন । টেলিফোন , টেলিভিশন ,

বিশ্বগ্রাম বা গ্লোবাল ভিলেজে আজকাল বিশ্বের একপ্রান্তের লােক অন্যপ্রান্তের লােকের ওপর নির্ভরশীল হয়ে পড়ছে । আজকের বিশ্বে আমরা মূলত একটি বিশ্বগ্রাম বা গ্লোবাল ভিলেজেই বসবাস করছি । যােগাযােগ , কর্মসংস্থান , শিক্ষা , চিকিৎসা , গবেষণা , অফিস , বাসস্থান , ব্যবসায় - বাণিজ্য , সংবাদ , বিনােদন ও সামাজিক যােগাযােগ এবং সাংস্কৃতিক উপাদান । বিনিময়ের ক্ষেত্রে বিশ্বগ্রামের বহুল প্রভাব লক্ষ্য করা যায় । কানাডিয়ান দার্শনিক ও লেখক হারবার্ট মার্শাল ম্যাকলুহান হলেন প্রথম ব্যক্তি যিনি বিশ্বগ্রাম বা গ্লোবাল ভিলেজ শব্দটিকে সকলের সামনে তুলে ধরে একে জনপ্রিয় করে তােলেন ১৯৬২ সালে তাঁর প্রকাশিত ‘ The Gutenberg Galaxy : The Making of Typographic Man ' এবং ১৯৬৪ সালে প্রকাশিত ‘ Understanding Media : The Extensions of Man বইয়ের মাধ্যমে এ বিষয়টি প্রকাশ করেন । AMONTON MOON MARSHALL McLURAN UNDERSTANDING MEDIA OWLINSONS MARSHALL McLUHAN চিত্র : মার্শাল ম্যাকলুহান ও তার লেখা বিখ্যাত দুটি বই দ্বিতীয় বইটিতে McLuhan বর্ণনা করেছেন কীভাবে বৈদ্যুতিক প্রযুক্তি এবং তথ্যের দ্রুত বিচরণ দ্বারা বিশ্ব একটি গ্রাম বা ভিলেজে রূপ লাভ করছে । তাঁর অন্তদৃষ্টি সে সময় ছিল যুগান্তকারী যেখানে তিনি গ্লোবাল ভিলেজকে একটি ইলেকট্রনিক নার্ভাস সিস্টেম ( মিডিয়া ) হিসেবে অভিহিত করেছিলেন এবং এটি যে পৃথিবী নামক গ্রহটিকে দ্রুতই সমন্বিত করবে সেটি বুঝিয়েছিলেন । তথ্য ও যােগাযােগ প্রযুক্তির মাধ্যমে বিভিন্ন ক্ষেত্রে ব্যাপক উন্নয়ন এখন বিশ্বের সকল প্রান্তের মানুষকে পরস্পরের কাছাকাছি নিয়ে এসেছে । গ্লোবাল ভিলেজ এর সংজ্ঞা yourdictionary.com অনুযায়ী গ্লোবাল ভিলেজ হচ্ছে- “ The definition of a global village is the idea that people are connected by easy travel , mass media and electronic communications , and have become a single community . " “ গ্লোবাল ভিলেজ হলাে একটি ধারণা যেখানে মানুষ সহজ যাতায়াত , গণমাধ্যম , ইলেক্ট্রনিক কমিউনিকেশন দ্বারা পরস্পর সংযুক্ত এবং একটি একক কমিউনিটিতে পরিণত হয় । ” MacMillan dictionary অনুযায়ী গ্লোবাল ভিলেজ হচ্ছে " The modern world which all countries depend on each other and seem to be closer together because of modem communications and transport system . " “ একটি আধুনিক দুনিয়া যেখানে সব দেশ একটি অপরটির ওপর নির্ভরশীল এবং আধুনিক যােগাযােগ এবং যাতায়াত ব্যবস্থার মাধ্যমে খুব বেশি কাছাকাছি মনে হয় । ” অক্সফোর্ড আমেরিকান ডিকশনারি অনুযায়ী গ্লোবাল ভিলেজ হচ্ছে- “ The world considered a single community linked by telecommunications .

" উপরের সংজ্ঞাগুলাের আলােকে বলা যায়- গ্লোবাল ভিলেজ হলাে তথ্য ও যােগাযােগ প্রযুক্তি নির্ভর এমন একটি পরিবেশ যেখানে দূরবর্তী স্থানে অবস্থান করেও পৃথিবীর সকল মানুষ একটি একক সমাজে বসবাস করার সুবিধা পায় এবং একে অপরকে সেবা প্রদান করে থাকে । অর্থাৎ গ্লোবাল ভিলেজ হচ্ছে এমন একটি ধারণা ইলেকট্রনিক যােগাযােগের মাধ্যমে গােটা পৃথিবীটাকেই একটি গ্রাম হিসেবে বিবেচনা করা হয়

গ্লোবাল ভিলেজের সুবিধাসমূহ ( Advantages of Global Village ):

মুহূর্তের মধ্যে বিশ্বের যে কোনাে স্থানের যে কোনাে ব্যক্তির সাথে যােগাযােগ করা যায় 


 • দূরত্ব অনুভূত হয় না অর্থাৎ ভৌগােলিক দূরত্ব কমে যায় ।


 • ব্যবস্থাপনা খরচ কমে ।


 • অন - লাইনে যেকোনাে লাইব্রেরি থেকে বই পড়া যায় এবং ঘরে বসেই বিশ্বের নামকরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলাের শিক্ষা গ্রহণ করা যায় । বিভিন্ন দেশ এবং তাদের সংস্কৃতি সম্পর্কে জানা যায় । 


• ঘরে বসেই ব্যবসায় - বাণিজ্য অর্থাৎ পণ্য কেনা - বেচা করা যায় । সৃজনশীল প্রশ্নের টিপস : “ বিশ্ব একটি একক পরিবার বলতে - বিশ্বগ্রামসহ এর কারণে সৃষ্ট যােগাযােগের ব্যাপক সুবিধা কীভাবে বিশ্বকে একক পরিবারে পরিণত করেছে তার বর্ণনাকে নির্দেশ করে । 


• টেলিমেডিসিন পদ্ধতিতে পৃথিবীর যেকোনাে প্রান্তে বসে বিশ্বের নামকরা চিকিৎসকদের চিকিৎসা সেবা পাওয়া যায়।


ইন্টারনেট টিভি ও ইন্টারনেট রেডি চালুর ফলে ঘরে বসেই বিনোদন উপভগোগ করা যায়।


ঘরে বসে ইন্টারনেটের মাধ্যমে আউটসোর্সিং করে উপার্জন করা যায় ফলে অর্থনৈতিক উন্নয়ন ঘটে।




গ্লোবাল ভিলেজের অসুবিধা (Disadvantage of Global Villages) 

• ইন্টারনেট হ্যাকিং করে তথ্য চুরি হয় এবং তথ্যের গােপনীয়তা প্রকাশ কর পায় 


• অসত্য তথ্য প্রকাশের মাধ্যমে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে পারে ।


 • জনগণ কোনাে কিছু পড়ে এর সূত্র যাচাই না করে সত্য বলে গ্রহণ করতে পারে ।


 • নেটে বেশি সময় দেয়ার কারণে সত্যিকারের বন্ধুর চেয়ে ভার্চুয়াল বন্ধুর সংখ্যা বাড়তে পারে । এতে করে মানুষের মধ্যে বিচ্ছিন্নতা বৃদ্ধি পেতে পারে ।


 • ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের তথ্য চুরি । ডেবিটও ক্রেডিট কার্ড জালিয়াতি ।


 • পর্ণগ্রাফির মাধ্যমে সামাজিক অবক্ষয়ের সৃষ্টি হওয়া । সাইবার আক্রমণ সংঘটিত হওয়া । 


• সহজে সাংস্কৃতিক বিনিময়ের ফলে কোন দেশের নিজস্ব সংস্কৃতির বিলুপ্তি ঘটা । 


• প্রযুক্তির বেশি ব্যবহারের ফলে শারীরিক সমস্যার সৃষ্টি হওয়া । 


• বেকারত্ব বৃদ্ধি পেতে পারে ।




বিশ্বগ্রাম প্রতিষ্ঠার উপাদানসমূহপ

( Elements for Establishing Global Villages)


 ১. হার্ডওয়্যার ( Hardware ) 

২. সফ্টওয়্যার ( Software ) 

৩. ইন্টারনেট সংযুক্ততা বা কানেকটিভিটি ৪. ডেটা ( Data )

 ৫. মানুষের জ্ঞান বা সক্ষমতা ( Capacity ) 


হার্ডওয়্যার ( Hardware ) : 

বিশ্বগ্রামে যে কোনাে ধরনের যােগাযােগ ও তথ্য আদান - প্রদানের জন্য সর্বপ্রথম যেটি প্রয়ােজন তা হলাে উপযুক্ত হার্ডওয়্যার সামগ্রী । হার্ডওয়্যার বলতে এখানে বুঝায় কম্পিউটার আর এর সাথে যন্ত্রপাতি , মােবাইল ফোন , স্মার্ট ফোন , অডিও - ভিডিও রেকর্ডার , স্যাটেলাইট


 সফ্টওয়্যার ( Software ) :

 বিশ্বগ্রাম প্রতিষ্ঠায় সফটওয়্যারের গুরুত্ব অপরিসীম । সফ্টওয়্যারের মধ্যে রয়েছে বিভিন্ন ধরনের অপারেটিং সিস্টেম , ব্রাউজিং সফটওয়্যার , কমিউনিকেটিং সফ্টওয়্যার এবং প্রােগ্রামিং ভাষা । 


ইন্টারনেট সংযুক্ততা বা কানেকটিভিটি ( Connectivity ) :

 বিশ্বগ্রামের মেরুদণ্ড হলাে নিরাপদভাবে রিসাের্স শেয়ার করার ইন্টারনেট সংযুক্ততা বা কানেকটিভিটি , যার মাধ্যমে বিভিন্ন উপাত্ত ও তথ্য ব্যবহারকারীর নিকট পৌছে । নিরাপদ তথ্য আদান - প্রদানই হচ্ছে বিশ্বগ্রামের মূলভিত্তি । এক্ষেত্রে টেলিকমিউনিকেশন , ব্রডকাস্টিং এবং ইন্টারনেট ব্যবহার করে ইন্টারনেট কানেকশন দেয়ার ব্যবস্থা করা হয়ে থাকে 


 ডেটা ( Data ) : 

ডেটা হচ্ছে Fact বা item যা এলােমেলােভাবে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকে । বিশ্বগ্রামে বিভিন্ন তথ্য যা ডেটা থেকে কম্পিউটারের মাধ্যমে প্রক্রিয়াকরণ করে পাওয়া যায় । বিশ্বগ্রামে ডেটা ও তথ্যকে মানুষ তার প্রয়ােজনে একে অপরের সাথে বিনামূল্যে বা অর্থের বিনিময়ে শেয়ার করতে পারে । 

মানুষের জ্ঞান বা সক্ষমতা ( Capacity ) : বিশ্বগ্রামের উপাদানগুলাের মধ্যে ব্যবহারকারীর জ্ঞান বা সক্ষমতা অন্যতম । বিশ্বগ্রাম মূলত তথ্যপ্রযুক্তিনির্ভর । তাই মানুষের সচেতনতা ও সক্ষমতার ওপর এর সুফল নির্ভর করছে ।


 হারবার্ট মার্শাল ম্যাকলুহান Herbert Marshall McLuhan ( July 21 , 1911 - December 31 , 1980 ) কানাডার অ্যাডমন্টন শহরে ২১ জুলাই ১৯১১ সালে জন্মগ্রহণ করেন । তিনি ইউনিভার্সিটি অব ম্যানিটোবা থেকে ১৯৩৪ সালে ইংরেজিতে এমএ ডিগ্রি লাভ করেন । ১৯৩৬ সালে তিনি ক্যামব্রিজ থেকে ব্যাচেলর ডিগ্রি অর্জন করেন । ১৯৪০ সালে ম্যাকলুহান সেইন্ট লুইস বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতা শুরু করেন । ম্যাকলুহান ১৯৪৪ থেকে ১৯৪৬ সাল পর্যন্ত অনটারিও এর উইন্ডসাের শহরের অ্যাজামশান কলেজে শিক্ষকতা করেন । ১৯৫০ সালের শুরুর দিকে ম্যাকলুহান কমিউনিকেশন এবং কালচারের ওপর সেমিনার শুরু করেন যা ফোর্ড ফাউন্ডেশনের অর্থায়নে টরেন্টো বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিচালিত হতে থাকে । ১৯৬৩ সালে তিনি তার প্রথম বড় কাজ : The Mechanical Bride ( ১৯৫১ ) প্রকাশ করেন যেটি ছিল সমাজ ও সংস্কৃতিতে বিজ্ঞাপনের প্রভাবের ওপর পরীক্ষামূলক একটি কাজ । ম্যাকলুহান ইউনিভার্সিটি অব টরেন্টোতে ছিলেন ১৯৭৯ সাল পর্যন্ত এবং এর মধ্যে বেশিরভাগ সময় তিনি অতিবাহিত করেন সেন্টার ফর কালচার এন্ড টেকনােলজির প্রধান হিসেবে । বিজ্ঞাপনের কাজের পাশাপাশি তিনি বিভিন্ন কর্পোরেট কোম্পানিতে যেমন- আইবিএম এবং এটিএন্ডটিতে কনসাল্টিং এর কাজ শুরু করেন । ১৯৭৯ সালের সেপ্টেম্বরে তিনি স্ট্রোকে আক্রান্ত হন এবং ১৯৮০ সালের ৩১ ডিসেম্বর ঘুমের মধ্যেই মৃত্যুবরণ করেন । ম্যাকলুহানের বই The Gutenberg Galaxy : The Making of Typographic Man ১৯৬২ সালে প্রকাশিত হয় । এ বইয়ে ম্যাকলুহান দেখিয়েছেন কীভাবে কমিউনিকেশন টেকনােলজি তথা আক্ষরিক লেখা , প্রিন্টিং প্রেস এবং ইলেকট্রনিক মিডিয়া বিভিন্ন দর্শনগত ভিত্তিকে প্রভাবিত করে এবং এর ফলশ্রুতিতে সামাজিক প্রতিষ্ঠানগুলাে কত গভীরভাবে অনুপ্রাণিত হয়ে থাকে


বিশ্বগ্রামের ধারণা সংশ্লিষ্ট প্রধান উপাদানসমূহ ( Related main elements of Global Village idea ):  গ্লোবাল ভিলেজ বা বিশ্বগ্রাম ধারণার সাথে অনেক উপাদান ওতপ্রােতভাবে জড়িত । প্রধান প্রধান উপাদানগুলাে নিচে উল্লেখ করা হলাে 

১. যোগাযোগ (communication) 

২.কর্মসংস্হন (Employment)

 ৩ , শিক্ষা ( Education ) 

8. চিকিৎসা ( Health care and treatment )

৫. গবেষণা ( Research ) 

 ৬. অফিস ( Office )

৭ , বাসস্থান ( Residence ) 

৮. ব্যবসায় - বাণিজ্য ( Business )

৯. সংবাদ ( News ) 

 ১০. বিনােদন ও সামাজিক যােগাযােগ ( Entertainment and Social communication ) । ১১. সাংস্কৃতিক বিনিময় ( Cultural exchange )

Share This

0 Response to "বিশ্বগ্রামের ধারণা ( Concept of Global Village )"

Post a Comment

Popular posts