ডিগ্রী ২য় বর্ষ ২০২১ দর্শন ৪র্থ পত্র স্পেশাল শর্ট সাজেশন রেডি আছে নিতে চাইলে ম্যাসেজ করুন।
Welcome To TopSuggestion

তথ্য প্রযুক্তি এবং প্রযুক্তি কি ? তথ্য প্রযুক্তির অবদান , তথ্য প্রযুক্তির উপাদানসমূহ ?

এর মধ্যে যে সকল প্রশ্নের উত্তর পাবেন:

 তথ্য প্রযুক্তি কি ?

প্রযুক্তি কি ? 

তথ্য প্রযুক্তির অবদান ?

তথ্য প্রযুক্তির উপাদানসমূহ ?

তথ্য প্রযুক্তি ( Information Technology ): মনে কর , তােমার যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী আত্মীয় অনলাইন মােবাইল ব্যাংকের মাধ্যমে ১০০ ডলার পাঠালাে । পাঠানাের পর পরই তুমি বাংলাদেশে ঐ সার্ভিসের যে কোনাে ব্যাংক থেকে টাকাটা তুলে নিতে পারছ । এখানে তােমার আত্মীয় তােমাকে যে টাকা পাঠালাে সেটি আসলে তােমার কাছে আসেনি বরং এসেছে একটি ম্যাসেজ বা তথ্য । তােমার আত্মীয় যখন আমেরিকার ব্যাংকে টাকা জমা দিল তখন তারা তাকে একটি নাম্বার ( তথ্য ) দিয়েছে । এ তথ্যটি তােমার আত্মীয় তােমাকে টেলিফোন করে জানিয়ে দিয়েছে । তুমি ঐ নাম্বারটি বাংলাদেশের সংশ্লিষ্ট আউটলেট বা ব্যাংকে গিয়ে বলে দিতে পারায় তারা তােমাকে ঐ ১০০ ডলার পরিমাণ টাকা পেমেন্ট করে দেবে । এখানে আবার আমেরিকার ব্যাংক থেকে কমপিউটার ও ইন্টারনেট বা টেলিকমিউনিকেশন মাধ্যম হয়ে একটি তথ্য বাংলাদেশের সংশ্লিষ্ট ব্যাংকের কমপিউটারে এসেছে বিভিন্ন মিডিয়া বা প্রযুক্তির মাধ্যমে । মূলত এটাই হলাে আইটি বা ইনফরমেশন টেকনােলজি ।

তথ্য প্রযুক্তি বলতে সাধারণত তথ্য রাখা এবং একে ব্যবহার করার প্রযুক্তিকেই বুঝানাে হয়।একে ইনফরমেশন টেকনােলজি ( Information Technology –IT ) । বা আইটি নামে অভিহিত করা হয় । অক্সফোর্ড ইংলিশ ডিকশনারিতে তথ্য প্রযুক্তিকে সংজ্ঞায়িত করা হয়েছে এভাবে " The branch of technology concerned with the dissemination , processing and storage of information , especially by means of computers " . তথ্য প্রযুক্তি মূলত একটি সমন্বিত প্রযুক্তি যা যােগাযােগ , টেলিযােগাযােগ , অডিও ভিডিও , কম্পিউটিং , সম্প্রচারসহ আরাে বহুবিধ প্রযুক্তির সম্মিলনে দীর্ঘদিন ধরে চর্চার ফলে সমৃদ্ধি লাভ করে তথ্য প্রযুক্তিরূপে আবির্ভূত হয়েছে । সার্বিকভাবে বলতে গেলে কম্পিউটার এবং টেলিযােগাযােগ ব্যবস্থার মাধ্যমে যাবতীয় তথ্য সংগ্রহ , একত্রীকরণ , সংরক্ষণ , প্রক্রিয়াকরণ এবং বিনিময় বা পরিবেশনের ব্যবস্থাকে তথ্য প্রযুক্তি হিসেবে চিহ্নিত করা হয় । তথ্য প্রযুক্তির সাথে যােগাযােগ মাধ্যমের রয়েছে নিবিড় সম্পর্ক । তাই বর্তমানে তথ্য প্রযুক্তিকে তথ্য ও যােগাযােগ প্রযুক্তি ( Information and Communication Technology – ICT ) বলা হয় । বাংলাদেশের তথ্য ও যােগাযােগ প্রযুক্তির নীতিমালা অনুসারে তথ্য ও যােগাযােগ প্রযুক্তি হলাে



প্রযুক্তি:

প্রযুক্তি শব্দটির ইংরেজি প্রতিশব্দ হলাে Technology । গ্রিক শব্দ Techne ( যার অর্থ হলাে আর্ট বা শিল্প , কারু কিংবা হাতের দক্ষতা ) এবং logia ( শব্দ ) এ দুয়ের সমন্বয়ে টেকনােলজি শব্দটি গঠিত । প্রযুক্তি বলতে সাধারণভাবে কতিপয় কৌশল ও প্রক্রিয়ার সমন্বিত জ্ঞানকে বুঝিয়ে থাকে । এটি কোনাে মেশিন , কমপিউটার বা ডিভাইস সংশ্লিষ্ট ও সংযুক্ত হতে পারে । যার ফলে যে কোনাে ব্যক্তি এর সম্পর্কে বিস্তারিত না জেনেও এগুলােকে ব্যবহার করতে সক্ষম হয় ।


“ যেকোনাে প্রকারের তথ্যের উৎপত্তি , সংরক্ষণ , প্রক্রিয়াকরণ , সঞ্চালন এবং বিচ্ছুরণে ব্যবহৃত প্রযুক্তি । ” বর্তমানে পৃথিবীর প্রায় প্রতিটি দেশেই তথ্যের অবাধ প্রবাহ এবং সাধারণ জনগণের তথ্য পাওয়ার অধিকারকে আইন করে বৈধতা দেওয়া হয়েছে । সম্প্রতি এ উদ্দেশ্যে বাংলাদেশেও এমন একটি আইন প্রণীত হয়েছে যা তথ্য অধিকার ২০০৯ নামে পরিচিত । এ সকল কিছুর উদ্দেশ্যই হচ্ছে আগামী বিশ্বকে একটি বিজ্ঞানভিত্তিক সমাজে পরিণত করা যার , মূলভিত্তি হবে ব্যাপক তথ্যের অবাধ প্রবাহ । 


তথ্য প্রযুক্তির অবদান ( The Contribution of IT ):

 আধুনিক সভ্যতার ক্রমবিকাশে তথ্য প্রযুক্তির প্রভাব অপরিসীম । কম্পিউটারের নির্ভুল কর্ম সম্পাদন , দ্রুতগতি , স্মৃতি , স্বয়ংক্রিয় কর্মসম্পাদন , নেটওয়ার্ক প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে তথ্য আদান - প্রদান , যােগাযােগ ইত্যাদি বৈশিষ্ট্যের জন্য তথ্য প্রযুক্তির প্রয়ােগক্ষেত্র আজ সুবিস্তৃত । তথ্য প্রযুক্তির উল্লেখযােগ্য অবদান হলাে 

১. অপচয় রােধ করে এবং সময়সাশ্রয়ী হয় ।

২. তথ্যের প্রাপ্যতা সহজ হয় । 

৩. তাৎক্ষণিক যােগাযােগ সম্ভব হয় । ফোন , ফ্যাক্স , ইন্টারনেট , ই - মেইল , SMS , MMS প্রভৃতি এর প্রকৃষ্ট উদাহরণ।

৪.প্রশিক্ষণ ও সংশ্লিষ্ট কর্মকাত্রে গতিকে ত্বরান্বিত করে । 

৫.সর্বক্ষেত্রে দক্ষতা বৃদ্ধি পায় । 

৬. ব্যবসায় - বাণিজ্যে লাভজনক প্রক্রিয়া সৃষ্টি করে ।

৭.ই - কমার্সের মাধ্যমে বিশ্বব্যাপী পণ্যের বাজার সৃষ্টি করা যায় । 

৮. ঘরে বসেই ইন্টারনেটের মাধ্যমে প্রয়ােজনীয় জিনিসের অর্ডার দেয়া যায়।

৯. শিল্প প্রতিষ্ঠানে তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহার মনুষ্যশক্তির অপচয় কমায় ।

 ১০.মানবসম্পদের উন্নয়ন ঘটায় । 

১১. ঘরে বসেই অনলাইনে বিশ্বের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষাগ্রহণ করতে পারছে । 

১২.ই - গভর্নেন্স চালুর মাধ্যমে সরকারের বিভিন্ন দপ্তরের মধ্যে সমন্বয় ঘটানাে যায়।

 ১৩.সিটিজেন চার্টারের মতাে নাগরিক সুবিধাগুলাে ঘরে বসেই পাওয়া যায় ।

 ১৪.ঘরে বসেই বিদ্যুৎ , পানি , গ্যাস , ফোন ইত্যাদি বিল দেয়া যায় ।



Get Link



তথ্য প্রযুক্তির উপাদানসমূহ ( The elements of IT ):

তথ্য প্রযুক্তিতে বর্তমানে যেসব মৌলিক উপাদান ব্যবহৃত হচ্ছে সেগুলাে হলাে 

১. কম্পিউটার ও আনুষঙ্গিক যন্ত্রপাতি ( Computer and other devices ) 

২. কম্পিউটিং ( Computing ) 

৩. রেডিও , টেলিভিশন , ফ্যাক্স ( Radio , Television , Fax ) 

৪. অডিও ভিডিও ( Audio Video ) 

৫. স্যাটেলাইট ( Satellite ) 

৬. কম্পিউটার নেটওয়ার্ক ( Computer network )

৭. ইন্টারনেট ( Internet ) 

৮. আধুনিক টেলিযােগাযােগ ( Modern Telecommunication ) 

৯. মডেম ইত্যাদি ( Modem etc. )

Share This

0 Response to " তথ্য প্রযুক্তি এবং প্রযুক্তি কি ? তথ্য প্রযুক্তির অবদান , তথ্য প্রযুক্তির উপাদানসমূহ ?"

Post a Comment

Popular posts